গ্রুপ সেরা হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউটে বার্সেলোনা

নিউজ ডেস্ক : বার্সেলোনার জার্সিতে মেসির ৭০০-তম ম্যাচে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে ৩-১ গোলে হারিয়ে কাতালানরা। এই জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউট পর্বের টিকেট নিশ্চিত করেছে বার্সা।

এছাড়া ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে ২-২ গোলের ড্রতে চেলসির, এবং ঘরের মাঠে নাপোলির সঙ্গে ১-১ এর ড্রতে দ্বিতীয় রাউন্ডের অপেক্ষা বাড়লো লিভারপুলের।

ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যূ-এই বার্সার জার্সি গায়ে ৭০০তম ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন বরপুত্র মেসি।  প্রথমে কিছুটা এলোমেলো খেললেও গুছিয়ে উঠতে সময় নেয়নি বেশি হোস্টরা।

নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নিয়েই স্কোরশিটে নাম লেখালেন সুয়ারেজ। ২৯ মিনিটে মেসির অ্যাসিস্ট থেকে গোল করেন উরুগুয়ের স্ট্রাইকার।

এর চার মিনিট পরেই ওই দুজনের দারুণ বোঝাপড়াতেই দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা।  ক্লাবের হয়ে ৭০০-তম ম্যাচ খেলতে নেমে চ্যাম্পিয়নস লিগে ৩৪ নম্বর প্রতিপক্ষের বিপক্ষে গোলটি করলেন মেসি।

সেকেন্ড হাফেও মেসি ম্যাজিকে ডর্টমুন্ডের ডিফেন্স ফুড়েঁ ৬৭ মিনিটে ক্যাপ্টেনের ডি-বক্সে বাড়ানো বলটা দারুণ শটে জালে জড়ান গ্রিজম্যান।

৭৭ মিনিটে গোলের দেখা পায় ডর্টমুন্ড।জেডন স্যানচোর ঐ গোলে ব্যবধানটাই শুধু কমিয়েছ জার্মান ক্লাবটা।

বুধবারের ম্যাচটা জিতলেই পরের পর্ব নিশ্চিত হয়ে যেত লিভারপুলের।  কিন্তু ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরুতে নাপোলির ড্রিস মের্টেন্সের গোলে পিছিয়ে পড়ে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

সমতা আনতে অপেক্ষা করতে হয় ৬৫ মিনিট পর্যন্ত। এরপর আর গোল নেই। অপেক্ষায় রইল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে ৪০ মিনিটে কার্লোস সলের গোলে লিড নেয় চেলসি। পরের মিনিটেই সেটা শোধ দিয়েছে কোভাসিচ। পুলিসিকের গোলে ৫০ মিনিটে ২-১ এ এগিয়ে ভ্যালেন্সিয়া।

৮২তম মিনিটে ড্যানিয়েল ভ্যাসের অসাধারণ গোলে আবার সমতা আনলেও জয়সূচক গোল আর করা হয়নি চেলসির।

আরো দেখাও

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close