ঢাকা সিটি নির্বাচন পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে রিট

নিউজ ডেস্ক : আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটের দিন পিছিয়ে দেয়ার নির্দেশনা চেয়ে রিট দায়ের করা হয়েছে।

হিন্দু ধর্মালম্বীদের ধর্মীয় উৎসব সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠান বিঘ্ন হওয়ার আশঙ্কা থেকে এ রিট দায়ের করা হয়েছে।

রিটে বলা হয়, আগামী ৩০ জানুয়ারি হিন্দু সম্প্রদায়ের সরস্বতী পূজা। দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়, মহাবিদ্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে এ পূজা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। নির্বাচন উপলক্ষে এসব প্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্র তৈরি করা হবে বিধায় বিষয়টি ধর্মীয় আয়োজনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হয়ে পড়ছে। পূজার পঞ্চমী শেষ না হওয়া পর্যন্ত সরস্বতী প্রতীমা বিসর্জন দেয়া যায় না। তাই ৩০ জানুয়ারির নির্ধারিত ভোটগ্রহণ এক সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়ার আবেদন জানাচ্ছি।

সোমবার অ্যাডভোকেট অশোক কুমার ঘোষ রিট দায়েরের পর বলেন, চলতি সপ্তাহে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চে এ আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে।

সোমবার (৬ জানুয়ারি) সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট আবেদন করেন।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) তফসিল অনুযায়ী, ডিএনসিসি-ডিএসসিসি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার)।

তফসিল ঘোষণার পর গত ৩০ ডিসেম্বর দুপুরে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাজন কুমার মিশ্র গণমাধ্যমকে জানান, নতুন তারিখ নির্ধারণ চেয়ে উচ্চ আদালতে রিট করবে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ।

যদিও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, সরস্বতী পূজা ২৯ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেছিলেন, ‘সরকার অনুমোদিত সরস্বতী পূজা ২৯ জানুয়ারি। যদি মন্ত্রিসভা থেকে সরস্বতী পূজার তারিখ ২৯ থেকে পরিবর্তন করে ৩০ জানুয়ারি করা হয়, তখন আমরা কিছু করতে পারব। এটা ছাড়া কমিশন নির্বাচনের দিন পরিবর্তন করতে পারবে না।’

আরো দেখাও

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close