শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১

শিশুকে কতদিন দুধ পান করানো উচিত?

স্পোর্টস ডেস্ক | আপডেট: শুক্রবার, জুন ৮, ২০১৮

শিশুকে কতদিন দুধ পান করানো উচিত?

২৭ বছর বয়সী এমা শার্ডলো হাডসন দুই সন্তানের মা। পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে ও দুই বছর বয়সী ছেলের জননী এই মা তার দুই সন্তানকেই নিজের দুধ পান করান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বুকের দুধে এন্টিবডি রয়েছে যেটা শিশুর শরীরের জন্য ভালো।’

যুক্তরাজ্যের চিকিৎসকরা পরামর্শ দেন যতদিন মা এবং শিশু দু’জনেই চাইবে ততদিন দুধ পান করানো উচিত। শিশুর জন্য প্রথম ছয় মাস মায়ের বুকের দুধ পান করানোর জন্য বিশেষ ভাবে বলা হয়। এরপর ছয় বছর দুধের সাথে সাথে অন্যান্য শক্ত খাবার খাওয়ানো যেতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা একমত হয়েছেন যে বুকের দুধ পান করানো মা এবং শিশু উভয়ের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। যেকোনো ধরনের ইনফেকশন, ডাইরিয়া, এবং বমি ভাব বন্ধ করার ক্ষেত্রে মায়ের দুধ ভালো রক্ষাকবচের কাজ করে। পরবর্তী জীবনে বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে। আর মায়ের জন্য স্তন এবং ওভারির ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।

যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের ওয়েবসাইটে বলা আছে, ‘যতদিন আপনার ভালো লাগবে ততদিন আপনি আপনার শিশুকে বুকের দুধ খাওয়াতে পারেন’। আরো বলা আছে ‘দুই বা তার চেয়ে বেশি বছর ধরে বুকের দুধ খাওয়ার পাশাপাশি এসময় অন্যান্য খাবার দেয়া উচিত।’

শিশুকে বুকের দুধ পান করানোতে ক্ষতির কিছু নেই। এর অনেক ভালো দিক থাকলেও একজন মা সিদ্ধান্ত নেন কখন বন্ধ করতে হবে। সিদ্ধান্তের পেছনে মায়ের পরিবেশ, পরিস্থিতি জড়িত। ডাক্তাররা বলছেন এটা মা এবং শিশুর আত্মিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। আর এটা একেবারেই একটা ব্যক্তিগত বিষয়। সূত্র: বিবিসি